Saturday, January 23, 2016

কাকদ্বীপ থেকে কামদুনি বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদে! ধর্ষণ সুনামি অবাধ,লগ্নি হোক্ বা না হোক্ অপরাধে শিল্পায়ণ সুনামি পিপিপি!

কাকদ্বীপ থেকে কামদুনি

বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদে!

ধর্ষণ সুনামি অবাধ,লগ্নি হোক্ বা না হোক্

অপরাধে শিল্পায়ণ সুনামি পিপিপি!

ফুলমতিয়ার কোলে

কে বা কাহারা দোলে?


Proshno - Rabindranath Tagore - Poetry - Sramana Mitra ...

Video for proshno by rabindranath tagore▶ 1:35

https://www.youtube.com/watch?v=ZLHUwIvLbmQ

Oct 30, 2014 - Uploaded by Sramana Mitra

Proshno - Rabindranath Tagore: Poetry - Sramana Mitra: Voice - Dominique Trempont: Photography.

Proshno - Question - recited by Rabindranath Tagore himself

Video for proshno by rabindranath tagore▶ 1:21

https://www.youtube.com/watch?v=IoHH046FJ4k

Oct 28, 2012 - Uploaded by Swarup Dutta

Recitation by Rabindranath Tagore himself ( his original voice ) against cruelty and oppression of humanity. I ...


পলাশ বিশ্বাস

বাংলা নাকি অনার্য ভূমি,অসুরের দেশ,মহিষাসুরের পুজোও হয়তবু কি নিরুত্তাপ বাংলা।সারা দেশ উত্তাল,বাংলা তবু রহে নিরুত্তাপ,শ্রেণী জাতির নির্মম ঘাত প্রতিঘাতে প্রতিনিয়ত বর্ণবৈষম্যের উত্সবেও,বিএসপি নামক হাতির পদচারণা যদিও অবাধ,চন্ডাল আন্দোলনের উত্তরসুরুরা যদিও মতুয়া সমাবেশে শাসকের শক্তি কিন্তু তিন লক্ষ দলিত আম্বেডকর সংগঠনের উপস্থিতিতে যেমন সারা দেশে লাল নীল ঝড় গৌরিকায়নের বিরুদ্ধে,বাংলায় তার প্রতিভ্দনে নেই- তাই অবাধ ধর্ষণ সংস্কৃতি।


অথচ গোবলয়ে,বুড়বকদের মলুকে মগের মুলুকের চেয়ে অনেক বেশি প্রতিবাদ প্রতিরোধ যেমনঃ

লক্ষ্ণৌয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে

প্রধানমন্ত্রী শুনলেন

'নরেন্দ্র মোদী মুর্দাবাদ' স্লোগান

শুক্রবার লক্ষ্ণঔয়ের বাবাসাহেব ভীমরাও আম্বেদকর বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে প্রবল বিক্ষোভের মুখে পড়লেন প্রধানমন্ত্রী। এদিন সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তাঁর ভাষণের মধ্যেই একদল ছাত্র স্লোগান তুললেন, 'নরেন্দ্র মোদী মুর্দাবাদ।' সঙ্গে সঙ্গেই নিরাপত্তা রক্ষীরা সেই ছাত্রদের সরিয়ে নিয়ে গেছে।

আমাদের রায় কবে, পথ চেয়ে কামদুনি - Anandabazar

www.anandabazar.com/.../2.../আম-দ-র-র-য়-কব-পথ-চ-য়-ক-মদ-ন-1.1145...

রাজীব হত্যার রায় নিয়ে প্রশ্ন করলে ঝাঁঝিয়ে উঠে তাঁদের এক জন বলেন, "আমরা রাজীব হত্যা বা কামদুনির ঘটনা সম্পর্কে কিছু জানি না। জানতে হলে মৌসুমীর বাড়িতে চলে যান।" এই একটি 'পরিবর্তন' ছাড়া, কামদুনি কিন্তু আছে কামদুনিতেই। আর বদল বলতে শুধু গ্রামের বাইরে মাথা তুলেছে বাহারি গেট, তাতে লেখা 'কামদুনি গ্রাম।' বারাসত স্টেশন লাগোয়া ...


বকলম রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরঃ কালের যাত্রার ধ্বনি শুনিতে কি পাও? তারি রথ নিত্য উধাও। জাগিছে অন্তরীক্ষে হৃদয়স্পন্দন চক্রে পিষ্ট আধারের বক্ষ-ফাটা তারার ক্রন্দন। ওগো বন্ধু, সেই ধাবমান কাল জড়ায়ে ধরিল মোরে ফেলি তার জাল তুলে নিল দ্রুতরথে দু'সাহসী ভ্রমনের পথে তোমা হতে বহু দূরে। মনে হয় অজস্র মৃত্যুরে পার হয়ে আসিলাম…


বেশি দিন হইল কি হইল না, ঘুইরা দাঁড়াইবার প্রয়াসে পক্ককেশ কুঁজো পিঠ নেতৃত্বের আহ্বাণে বিগত ১২ থেকে ১৪ই ডিসেম্বর রাজ্যে বাম ছাত্র-যুব-মহিলা সংগঠনগুলির ডাকে কাকদ্বীপ থেকে কামদুনিসাইকেল জাঠা সংগঠিত হইল। যেহেতু রাজ্যে মহিলাদের ওপর আক্রমন বেড়ে চলেছে পাল্লা দিয়ে। গত চার বছরের বেশি সময় রাজ্য মহিলাদের ওপর সংগঠিত আক্রমনের হিসেবে দেশের মধ্যে প্রথম।


ধর্ষণ সংস্কৃতি চলিতেছে অবাধ।সকাল সকাল পাতাভর্তি তেল প্রভাতের কলরব ফেল।খবরের শিরোনামে রকেট।বাঙালির জীবন জীবিকা,মূল্যবোধ,রোজনামচা,সাহিত্যসংস্কৃতি,শিক্ষা চিকিত্সা প্রতিদিন খাটভাঙ্গিবার প্রতিযোগিতা,আর কিছু ভাঙ্গিবার মুরোদ অক্ষরে অক্ষরে নেই বলাই বাহুল্য।


চক্ষু ফুটাইতে হইব না,ফুটতাছে পদ্মফুল শুধু দিকে দিকে পিপিপি বিদেশি লগ্নী আর নানাবিধ তোলা,রং বেরং অপরাধ,জনম ইস্তক শুধু ননু ফুটাতাছে,তাই ধর্ষণ সুনামি অবাধ মুক্তবাজারি অবাধ লগ্নির মত সেনসেক্সের ষাঁড়ের কবলে বাঙালির জীবন যৌবন ,লোক পরলোক..


কতই না আন্দোলন হইল।পরিবর্তনও ক্যালাইলাম।নারী ও শিশুর নিরাপত্তাহীনতা শুধু মুলধন।বাণিজ্যনারী শিশু পাচার।

কামদুনি হইতে কাকদ্বাপ তাই ধর্ষণ অবাধ।ধর্ষণে নাম্বার ওয়ান।যেমন নাম্বার ওয়ান প্রতিযোগিতায় পুরস্কার ঝুড়ি ঝুড়ি।থুড়ি,ছুড়ি কিংবা বুড়ি ঝগ্ষণে ছাড় নাই।বিচার নাই।

মগের মুল্লুকে বসবাস।

ফুলমতিয়ার কোলে

কে বা কাহারা দোলে?

বিকল্প প্রশ্নঃকে যে কার লেপের তলায়,শিবের বাবাও টেরটি পাইব না কি ফুলমতিয়া কাহার কোলে দোলে!

বাঁশ ভালোই সামনে পেছনে,ধর্ষণ সংস্কৃতিতে মগের মুল্লুকে স্বর্গবাস!

বাবাগো!মাগো!গঙ্গাসাগরে জামাই আদরে যারা ছিলেন,তাহারা কি লিখিলেন,ক্যামনে সাগরদ্বীপের বাসিন্দারা বেদখল হইতাছে?কেহ কি লিখিবেন দ্যাশ ভাগের বলি আমরা যারা,তাহাদের উদ্বাস্তু পরিচয় মুছিল না ক্যান?


বাবাগো!মাগো!মরিচঝাঁপির ধর্ষণ গণসংহার এতো কাল হইল ,বিচারে বাণী কেন নিভৃতে কাঁদে?

অথবা কামদুনির কি হইল ন্যায়?

সারা বাংলা যেন বিধবা পল্লী,কাহার সেই পাপ,বাবাগো!মাগো!

বাঘে খায়না,সাপেও খায না,ধর্ষণ দংশিত তবু রোজ নারী দেহ যেখানে সেখানে,তবু জাপানী তেল লাগে? বাবাগো!মাগো!

কাটা মুন্ডু যেখানে সেখানে সহিষ্ণুতা সানি লিওন!

রক্তে ভাইস্যা যায় আ মরি বাংলা ভাষা!সবার সেরা বাংলা,সকল দেশের রানি!


বাংলা এক্ষুনি সাঁতরাগাছি ব্রিজ, মেরামত চলতাছে!পিপিপি!


ভারতের আইটি সিটি বেঙ্গালুরে দিল্লিভিত্তিক একটি সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী ৩৮ বছর বয়সী নির্মল। সে বিবাহিত; দু'সন্তানের জনক নির্মল স্বাভাবিক জীবন যাপন করে আসছেন। কিন্তু এটা ছাড়াও ৯২২ জন নারী-পুরুষের সাথে তার যৌন সম্পর্ক ছিল।

তিনি বলেন, 'আমি যখন নবম শ্রেণীতে পড়ি, তখন থেকেই শুরু। হঠাৎ করেই আমি পর্নোগ্রাফির প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ি। একদিন বন্ধুরা আমার জন্য একটি মেয়ের ব্যবস্থা করে।'

'সেই থেকে শুরু। যখন আমার বয়স ৩৫, তখন আমি প্রায় সাড়ে ছয় হাজার নারীর সাথে চ্যাট করেছি। আমি অনলাইনে আমার নাম্বারটা ছড়িয়ে দিই এবং একসময় এতে আসক্ত হয়ে পড়ি। কিন্তু যখন পুরুষের সাথে জড়িয়ে যাই, তখন নিজেকে মানসিকভাবে নির্যাতিত অনুভব করি এবং তা থেকে সরে আসতে চাই' যোগ করেন নির্মল।

এভাবে শুরু নির্মলের; যৌন আসক্ত হয়ে দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুরে বেড়ানো। মোবাইলসহ নানা উপায়ে এই জীবনের সাথে জড়িয়ে যাওয়া, যে নির্মল আগে কখনোই এ রকম ছিল না।

যৌন আসক্তি সংসার ভেঙে দিতে পারে; অথচ যা ভারতে ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। রাজনীতিক, অভিনয় তারকা, ডাক্তার ও শিক্ষার্থী সবাই এর শিকার। তবে এটিকে রোগ হিসেবে বিবেচনায় নিয়ে চিকিৎসা দেয়ার মতো প্রতিষ্ঠান দেশে তেমন নেই।

ভারতের মতো দেশে নারীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা অনেকটাই দুর্বল, যেখানে এ ধরনের যৌন আসক্ত রোগী ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে। এরা একসময় যৌন শিকারিতে পরিণত হতে পারে। এমনিতেই দিল্লিতে ২০১২ সালে ধর্ষণের হার ২৪ ভাগ বেড়েছে।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইকোলজি বিভাগের অধ্যাপক স্টিভেন পিনকার সম্প্রতি টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানান, 'সাধারণত, পুরুষরা নারীদের আনুকুল্য লাভের চেষ্টা করে এবং তাদের প্রলুব্ধ করে। কিন্তু তা মাত্রা ছাড়িয়ে গেলে যৌন হয়রানি এবং ধর্ষণে রূপ নেয়।'

প্রতি ২০ মিনিটে ধর্ষণ

ভারতে ধর্ষণের হার উদ্বেগজনক পর্যায়ে রয়েছে। দেশটিতে প্রতি ২০ মিনিটে একজন নারী ধর্ষণের শিকার হচ্ছেন। রাজধানী নয়াদিল্লির ধর্ষণ পরিসংখ্যান আশঙ্কাজনক। এজন্য নয়াদিল্লি 'রেপ ক্যাপিটাল' হিসেবে গোটা ভারতে পরিচিত।

ভারতের ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর পরিসংখ্যান মতে, ২০১১ সালে ভারতে ২৪ হাজার ২০৬টি ধর্ষণের ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে ধর্ষণের হার আরো ১০ শতাংশ বেড়েছে। ১৯৯০ থেকে ২০০৮ সালের মধ্যে দেশটিতে ধর্ষণের ঘটনা দ্বিগুণ হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ ডিসেম্বর নয়াদিল্লিতে চলন্ত বাসে এক মেডিকেল ছাত্রীকে গণধর্ষণ ও পৈশাচিক নির্যাতনের পর তাকে এবং তার ছেলেবন্ধুকে গাড়ি থেকে ছুঁড়ে ফেলা হয়। গত ২৯ ডিসেম্বর সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে মারা যান ওই ছাত্রী। এই ঘটনায় দেশটিতে সহিংস বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

পশ্চিমবঙ্গে নান ধর্ষণ: প্রধান সন্দেহভাজন গ্রেপ্তার - Prothom Alo

www.prothom-alo.com › আন্তর্জাতিক › ভারত

পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটে বৃদ্ধা এক নানকে ধর্ষণের ঘটনায় নজরুল নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলে কলকাতার শিয়ালদহ রেলস্টেশন থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি এ ঘটনার মূল হোতা বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের দাবি, ২৮ বছর বয়সী নজরুল বাংলাদেশি।...

পশ্চিমবঙ্গ সীমান্তে বাংলাদেশি দুই তরুণীকে ধর্ষণ - Prothom Alo

www.prothom-alo.com › আন্তর্জাতিক

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁ মহকুমার গাইঘাটা থানার খেদপাড়া সীমান্ত এলাকায় বাংলাদেশি দুই তরুণী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। সম্পর্কে তাঁরা বোন। গত শনিবার এ ঘটনা ঘটে বলে পশ্চিমবঙ্গের সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়। পশ্চিমবঙ্গের পুলিশের কাছে ওই দুই তরুণী দাবি করেন, তাঁদের বাড়ি...

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণ... - বিবিসি বাংলা ...

https://www.facebook.com/BBCBengaliService/posts/754530181252556

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণ ও খুন - BBC Bangla - খবর.

পশ্চিমবঙ্গে বৃদ্ধ নানকে ধর্ষণ: প্রধান অভিযুক্ত গ্রেপ্তার - The ...

www.ittefaq.com.bd/world-news/2015/06/18/25587.html

১৮ জুন, ২০১৫ - ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মিশনারি স্কুলে ঢুকে ৭২ বছরের নানকে ধর্ষণের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত নজরুলকে (২৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শিয়ালদা স্টেশনে ট্রেন থেকে নামার সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। খবর বিবিসির। পুলিশ কর্মকর্তা চিত্তরঞ্জন নাগ বলেন, আগে থেকে খবর পেয়ে আমাদের লোকেরা রেল স্টেশনে অপেক্ষা করছিল। বনগাঁও লোকাল ...

পশ্চিমবঙ্গে নান ধর্ষণ ঘটনায় গ্রেফতার ১ - Jugantor

www.jugantor.com/second-edition/2015/06/19/281286

১৯ জুন, ২০১৫ - পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটে বৃদ্ধা এক নানকে ধর্ষণের ঘটনায় নজরুল নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকালে কলকাতার শিয়ালদহ রেল স.

পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসী ধর্ষণ ঘটনায় একজন গ্রেফতার

www.jugantor.com/ten-horizon/2015/03/27/240645

২৭ মার্চ, ২০১৫ - পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটের একটি কনভেন্ট স্কুলে ডাকাতি ও বৃদ্ধা নানকে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করল রাজ্য গোয়.

পশ্চিমবঙ্গে ডাকাতি ও নান ধর্ষণ: গ্রেফতার ১, তদন্ত চালাবে না ...

bangla.irib.ir/.../71844-পশ্চিমবঙ্গে-ডাকাতি-ও-নান-ধর্ষণ-গ...

২৬ মার্চ, ২০১৫ - পশ্চিমবঙ্গে ডাকাতি ও নান ধর্ষণ: গ্রেফতার ১, তদন্ত চালাবে না সিবিআই. ২৬ মার্চ (রেডিও তেহরান): পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটের একটি কনভেন্ট স্কুলে ডাকাতি ও বৃদ্ধা নানকে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করল রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডি। সেলিম শেখ নামে ওই সন্দেহভাজনকে গতকাল ...

পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসিনী ধর্ষণে গ্রেপ্তার বাংলাদেশী যুবক ...

www.bbc.com/bengali/news/2015/06/150618_ah_rape

১৮ জুন, ২০১৫ - গ্রেপ্তার হওয়া যুবকের বাড়ি যশোরে আর নদীয়া জেলার রাণাঘাটে একটি মিশনারি স্কুলের ওই সন্ন্যাসিনীকে এই যুবকই ধর্ষণ করেছিল বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। শেয়ালদা স্টেশনে ট্রেন থেকে নামতেই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পশ্চিমবঙ্গে বৃদ্ধ নানকে ধর্ষণ : প্রধান অভিযুক্ত গ্রেফতার ...

www.mathabhanga.com/news/70277

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মিশনারি স্কুলে ঢুকে ৭২ বছরের নানকে ধর্ষণের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত নজরুলকে (২৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শিয়ালদা স্টেশনে ট্রেন থেকে নামার সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়। পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের দাবি, ২৮ বছর বয়সী নজরুল বাংলাদেশি। পুলিশ কর্মকর্তা চিত্তরঞ্জন নাগ বলেন, আগে থেকে খবর পেয়ে আমাদের লোকেরা ...

পশ্চিমবঙ্গে নান ধর্ষণ : প্রধান আসামি গ্রেফতার

bangla.thereport24.com/article/111224/index.html

পশ্চিমবঙ্গে নান ধর্ষণ : প্রধান আসামি গ্রেফতার. ২০১৫ জুন ১৮ ২২:০৪:৫৯. পশ্চিমবঙ্গে নান ধর্ষণ : প্রধান আসামি গ্রেফতার. কলকাতা প্রতিনিধি : পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটে নান গণধর্ষণ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত নজরুল ইসলাম ওরফে নজুকে গ্রেফতার করেছে পশ্চিমবঙ্গের গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডি। ধর্ষণের ঘটনায় এ পর্যন্ত ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আপনি বাঘিনী আপনার পশ্চিমবঙ্গে কেন ধর্ষণ হচ্ছে? মমতাকে মোদির ...

https://plus.google.com/.../posts/Qezee3qUawE

Palash Biswas - ব্যক্তিগতভাবে ভাগ করা হযেছে

৮ মে, ২০১৪ - আপনি বাঘিনী আপনার পশ্চিমবঙ্গে কেন ধর্ষণ হচ্ছে? মমতাকে মোদির কটাক্ষ

এবার পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশী দুই বোনকে ধর্ষণ - আমার দেশ

www.amardeshonline.com/pages/details/2014/01/21/232977

২০ জানুয়ারী, ২০১৪ - গত কিছুদিন ধরে বিভিন্ন দেশের নারীরা ভারতে ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর এবার দেশটির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ধর্ষিত হলেন বাংলাদেশের বাসিন্দা দুই বোন। একটি নৌকায় করে নদী পাড়ি দেয়ার সময় নৌকার মাঝি ও তার এক সহযোগী তাদের ধর্ষণ করে বলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন ওই দুই তরুণী। পুলিশ জানায়, বছর আঠারো-কুড়ি বছর বয়সের দুই ...

পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসিনী ধর্ষণ: ৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার

www.protikhon.com › শীর্ষ স্লাইড

পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসিনী ধর্ষণ: ৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার. প্রকাশঃ এপ্রিল ১, ২০১৫ সময়ঃ ৭:২০ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৭:৩১ অপরাহ্ণ. আন্তর্জাতিক ডেস্ক. Nun ঢাকা: ভারতের পশ্চিমবঙ্গে এক সন্ন্যাসিনী (নান) ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে বুধবার চার বাংলাদেশি নাগরিককে আটক করেছে সেদেশের পুলিশ। পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটে অবস্থিত ...

পশ্চিমবঙ্গে ৭৪ বছরের সিস্টারকে ধর্ষণ প্রতিবাদে সড়ক ও রেল অবরোধ

https://www.dailyjanakantha.com/.../পশ্চিমবঙ্গে-৭৪-বছরের-সিস...

১৫ মার্চ, ২০১৫ - ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রানাঘাটে এক খ্রীস্টান মিশনারি স্কুলে লুটপাটে বাধা দেয়ায় ৭৪ বছরের বৃদ্ধ এক সিস্টারকে ধর্ষণ করা হয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে। এই ঘটনার পরে উত্তাল হয়ে ওঠে রানাঘাট। বিক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দারা। শনিবার দিনভর ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ও রেল অবরোধ ...

Eimatro.com: পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণ: বাংলাদেশ ...

www.eimatro.com/2015/03/blog-post_569.html

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রানাঘাটে সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে বাংলাদেশের যোগ থাকতে পারে বলে ইঙ্গিত করলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও'ব্রায়েন৷ তার কথায়, 'রানাঘাটের সঙ্গে বাংলাদেশ সীমান্তের সহজ সংযোগ আছে৷' তার মানে কি অপরাধীরা বাংলাদেশে পালিয়ে গিয়েছে? না কি তারা বাংলাদেশ থেকে এসেছিল? ডেরেকের জবাব, 'আমি এর ...

পশ্চিমবঙ্গে মোড়লের নির্দেশে ধর্ষণ - bdnews24.com

bangla.bdnews24.com/world/article733464.bdnews

২৩ জানুয়ারী, ২০১৪ - ভিন্ন সম্প্রদায়ের এক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের দায়ে গ্রাম্য সালিশ বসিয়ে ২০ বছরের এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছে অন্তত ১৩ জন পুরুষ।

পশ্চিমবঙ্গে ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউটে নিয়মিত ঘটছে ...

bdn24x7.com/?p=288908

২৬ ডিসেম্বর, ২০১৫ - পশ্চিমবঙ্গে ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউটে নিয়মিত ঘটছে ধর্ষণ. নিউজডেস্ক, বাংলাদেশনিউজ. Rape-1-11 "সভ্যতার সূতিকাগার" ভারতের পশ্চিমবঙ্গে সরকারী শিক্সা প্রতিষ্ঠানে যৌন নিগ্রহের ঘটনা নিয়ে চলছে তোলপাড়। যে সে প্রতিষ্ঠান নয়, "সত্যজিৎ রায় ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট" (এসআরএফটিআই) এর ক্যাম্পাসে ...

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে 'ধর্ষণ করিয়ে' দেয়ার হুমকি তাপস পালের ...

www.goodnewsbd.com/?p=28060

১ জুলাই, ২০১৪ - Taposh Paal n his wife. পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূলদলীয় সংসদ সদস্য তাপস পাল বিরোধীদলের উদ্দেশে যে অশালীন মম্তব্য করেছেন তা নিয়ে সারা দেশে তোলপাড় শুরু হয়েছে। বিরোধী দলের নারীদের ধর্ষণের হুমকি সম্বলিত ভিডিও ফুটেজ একটি বেসরকারি টেলিভিশনে প্রকাশ হওয়ার একদিন পর দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন তাপসের স্ত্রী নন্দিনী ...

পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশি কিশোরীকে ধর্ষণ - BanglaNewsuk ...

www.banglanewsuk.com/?p=20908

কলকাতা প্রতিনিধি: পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁ সীমান্তের গুনারমাঠ এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ১৩ বছরের এক বাংলাদেশি কিশোরীকে ধর্ষণ করেছে দুই যুবক। ওই কিশোরীর বাড়ি বাংলাদেশের ফেনী জেলায়। বৃহস্পতিবার ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিএসএফ জানায়, মঙ্গলবার ওই ...

পশ্চিমবঙ্গে ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে হত্যা | Arthosuchak

www.arthosuchak.com/archives/.../পশ্চিমবঙ্গে-৮-বছরের-শিশু/

২৫ জুলাই, ২০১৪ - ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় ৮ বছরের একটি শিশুকন্যাকে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ১২ ঘণ্টা নিখোঁজ থাকার পর বৃহস্পতিবার সকালে তার মৃতদেহ গাছে ঝুলতে দেখা যায়। এক খবরে বিবিসি জানিয়েছে, ধর্ষণ আর খুনের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে তিনব্যক্তিকে গনপিটুনি দিয়েছে গ্রামবাসী, এতে এক ...

পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণ : আরো চার 'বাংলাদেশি' আটক ...

ctgtimes24.com › .শিরোনাম

১ এপ্রিল, ২০১৫ - সিটিজি টাইমস২৪ ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রানাঘাটে ৭৪ বছরের এক খ্রিষ্টান নান বা সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পাঞ্জাব পুলিশ লুধিয়ানা থেকে চারজনকে.

১৯৯০ বানতলা ধর্ষণ মামলা - উইকিপিডিয়া

https://bn.wikipedia.org/wiki/১৯৯০_বানতলা_ধর্ষণ_মামলা

১৯৯০ বানতলা ধর্ষণ মামলা. https://bn.wikipedia.org/s/1rh3. উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে. ঝাঁপ দাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান ... 'https://bn.wikipedia.org/w/index.php?title=১৯৯০_বানতলা_ধর্ষণ_মামলা&oldid=1957200' থেকে আনীত. বিষয়শ্রেণীসমূহ: পশ্চিমবঙ্গেঅপরাধ · দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলা · পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস · ভারতে ধর্ষণ ...

সন্নাসিনী ধর্ষণ, পশ্চিমবঙ্গে এক বাংলাদেশি আটক | CTG Sun

ctgsun.com/?p=44760

সন্নাসিনী ধর্ষণ, পশ্চিমবঙ্গে এক বাংলাদেশি আটক. tmpphpT9E8lM. অনলাইন ডেস্ক:: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলায় এক সন্নাসিনীকে ধর্ষণের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত নজরুল ইসলাম নামে এক বাংলাদেশিকে আটক করেছে সেদেশের পুলিশ। ভারতীয় পুলিশের বরাতে সংবাদমাধ্যগুলো জানিয়েছে কলকাতার শিয়ালদহ রেল স্টেশন থেকে নজরুলকে আটক করা হয়।

পশ্চিমবঙ্গে নান ধর্ষণ : প্রধান আসামি গ্রেফতার

primenewsbd.com/index.php?page=details&nc=6&news_id=56077

১৮ জুন, ২০১৫ - পশ্চিমবঙ্গে নান ধর্ষণ : প্রধান আসামি গ্রেফতার. Google +. কলকাতা প্রতিনিধি : পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটে নান গণধর্ষণ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত নজরুল ইসলাম ওরফে নজুকে গ্রেফতার করেছে পশ্চিমবঙ্গের গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডি। ধর্ষণের ঘটনায় এ পর্যন্ত ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সিআইডি এর তরফে ডিআইজি ...

পশ্চিমবঙ্গে মোড়লের নির্দেশে রাতভর ধর্ষণ | আমাদের কথা

amader-kotha.com/page/621114

মধ্যযুগীয় এই বর্বরতা ঘটেছে সোমবার পশ্চিমবঙ্গের বিরভূম জেলায়, বৃহস্পতিবার এ খবর জানিয়েছে এনডিটিভি। গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ওই তরুণী পুলিশকে জানিয়েছেন, প্রতিবেশী মেসো ও দাদারা দলবেঁধে সারারাত ধরে তাকে ধর্ষণ করে, এতে বেশ কয়েকবার তিনি সংজ্ঞা হারান। তিনি বলেন, "গ্রামের বাবার বয়সী লোকেরা আমাকে ধর্ষণ করেছে।"

আলোচনা সমালোচনার মধ্যমণি | Bangladesh Pratidin

www.bd-pratidin.com/various/2015/10/10/103467

১০ অক্টোবর, ২০১৫ - ভারতজুড়েই ধর্ষণ বেড়েছে বিগত বছরগুলোতে। আর পশ্চিমবঙ্গে ধর্ষণ বাড়ার নতুন তত্ত্ব উপস্থাপন করে প্রবল সমালোচনার মুখোমুখি হন মমতা। বিধানসভায় দাঁড়িয়ে এই প্রসঙ্গে বিরোধীদের প্রশ্নের উত্তরে মুখ্যমন্ত্রী বর্ধিত জনসংখ্যাকেই ধর্ষণ বৃদ্ধির কারণ হিসেবে দায়ী করেন। বলেন, 'বিরোধীরা বলছেন ধর্ষণ বাড়ছে, কিন্তু তার সঙ্গে ...

ভারতে ধর্ষণ রেকর্ডে শীর্ষে দিল্লি | বিডি নিউজ | bdnews.com

bangla.bdnews.com/news/18439

১৪ জানুয়ারী, ২০১৬ - নয়া দিল্লি, ৩ আগস্ট: ভারতের ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর পরিসংখ্যান বলছে গত তিন বছরে দেশটিতে ধর্ষণের ঘটনা বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। এরমধ্যে দেশটির বড় শহরগুলোর মধ্যে ধর্ষণের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে রাজধানী নয়া দিল্লি। ভারতের ন্যাশনাল রেকর্ডস ব্যুরোর পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০০৯ সালে ভারতে ২১ হাজার ৩৯৭টি ...

আবারো ধর্ষণ-হত্যা\ পশ্চিমবঙ্গে সাংবাদিককে গুলী করে হত্যা ...

www.dailysangram.com/news_details.php?news_id=105898

৭ জানুয়ারী, ২০১৩ - আবারো ধর্ষণ-হত্যা\ পশ্চিমবঙ্গে সাংবাদিককে গুলী করে হত্যা. রাজ্যশ্রী বকসী, কলকাতা : উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে প্রকাশ্য রাস্তায় স্থানীয় চ্যানেলের বার্তা সম্পাদককে গুলী করে হত্যা করা হয়েছে। স্থানীয় চ্যানেলের বার্তা সম্পাদকের গাড়ি আটকে এলোপাতাড়ি গুলী চালানো হয়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু ...

ধর্ষিতার আগুনে শুরু নতুন বছর! - Deutsche Welle

www.dw.com/bn/ধর্ষিতার-আগুনে-শুরু-নতুন.../a-17342481

৬ জানুয়ারী, ২০১৪ - ২০১৪ সাল শুরু হলো পশ্চিমবঙ্গে, এক ধর্ষিতা মেয়ের জ্বলেপুড়ে মরার ঘটনা দিয়ে৷ এই সময় এবং সমাজ কত নির্মম, তার জ্বলন্ত নিদর্শন হয়ে থাকল এই মর্মান্তিক মৃত্যু!

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে একাদশ শ্রেণীর এক কিশোরীকে বাবা-ছেলে ...

bdtoday24.com › আন্তর্জাতিক

১৩ এপ্রিল, ২০১৪ - ভারতের পশ্চিমবঙ্গে একাদশ শ্রেণীর এক কিশোরীকে বাবা-ছেলে মিলে ধর্ষণ. April 13, 2014. rape-410 ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ভারতের পশ্চিমবঙ্গে একাদশ শ্রেণীর এক কিশোরীকে বাবা-ছেলে মিলে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মানুষরূপে জানোয়ারের হায়নার সামনে একটি কিশোরী, হাত দুই দূরে। একটু একটু করে পেছাচ্ছে জানোয়ারের হাত থেকে ...

পশ্চিমবঙ্গে আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণ - ই-পেপার

dailyinqilab.net/2014/06/03/183260.php

৩ জুন, ২০১৪ - ইনকিলাব ডেস্ক : উত্তর প্রদেশে চাঞ্চল্যকর দুই বোনের ধর্ষণের পর এবারে পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলায় আদিবাসী এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষণের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি হিসেবে তিন হাড়ি দেশি মদ জরিমানা করেছে স্থানীয় মোড়ল। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে বীরভূমে মোহাম্মদ বাজারে ষষ্ঠ ...

অনুসন্ধানের ফলাফল

ভারতে ধর্ষণের ভিডিও প্রকাশের পর নির্যাতিতার আত্মহত্যা ...

www.kalerkantho.com/online/world/2016/01/14/313464

১৪ জানুয়ারী, ২০১৬ - ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যে এক মধ্যবয়সী নারীকে গণধর্ষণ করে সেই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার পর ওই নারী আত্মহত্যা.

ভারতের ধর্ষণ বৃত্তান্ত | 24Ghanta.com - Zee News - India

zeenews.india.com/bengali/womens-day.../rape-rate-in-india_11879.html

৭ মার্চ, ২০১৩ - ১০৪ তম আন্তর্জাতিক নারী দিবসের ঠিক আগের দিন কেরালার কোজিকোড়ে একটি ৩ বছরের শিশু শিকার হল গণধর্ষণের। রাস্তায় শিশুটিকে পিঁপড়ে মোড়া অচৈতন্য অবস্থায় উদ্ধার করল কিছু স্কুলপড়ুয়া। অন্যদিকে, গাজিয়াবাদের অদূরে এক ১৯ বছরের স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করল কিছু দুষ্কৃতী।

পশ্চিমবঙ্গ সর্ম্পকে সকল খবরাখবর পড়ুন - সর্বশেষ সংবাদ পড়ুন

www.newspapers71.com/topic/পশ্চিমবঙ্গ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ১০ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার পরিবার। বুধবার ভোরে উত্তরাঞ্চলীয় কোচবিহার জেলায় ওই কিশোরীর ঝুলন্ত মৃতদেহ পাওয়া যায়। পুলিশ বলছে, তবে ময়না তদন্তের আগে ধর্ষণ বা গণধর্ষণ হয়েছে কী না, তা বলা সম্ভব না। Publisher: BBC Bangla Last Update: 1 Day, 16 Hours, 6 Minutes ...

পশ্চিমবঙ্গে আবারো স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ | প্রিয়

www.priyo.com/2014/02/22/55386.html

২২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৪ - খেলার বল দেবে বলে স্কুল-ফেরত পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে রাস্তা থেকে ডেকে পানশালার পিছনে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার পোলবায়। শুক্রবার বিকেলে এই ঘটনার জেরে ওই পানশালায় ভাঙচুর চালায় জনতা।

পশ্চিমবঙ্গে বাপ-ছেলে মিলে কিশোরীকে ধর্ষণ - ReportBD24

www.reportbd24.com/international/article-364

পশ্চিমবঙ্গে বাপ-ছেলে মিলে কিশোরীকে ধর্ষণ. রিপোর্টবিডি ডেস্ক । ১৩ এপ্রিল, ২০১৪ ৫:২৯. পৃড়ড মানুষরূপী হয়নার সামনে একটি কিশোরী, হাত দুই দূরে। একটু একটু করে পেছাচ্ছে হায়নার হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে। সে হঠাৎ তাকিয়ে দেখে ওই ছেলেটির বাবা। এবার নিজেকে রক্ষা করতে পেরেছি, এই ভেবে স্বস্তি পেলো মেয়েটি। কিন্তু না, হলো উল্টো।

http://bangladeshshomoy.com/-ভারতে পুরুষ ধর্ষন !

bangladeshshomoy.com/news.php?id=7433

এমনকি কোনো পুরুষকে কোনো নারী ধর্ষণ করতে পারে সেটিই হয়তো বিশ্বাস করা হয় না। বিশেষত কোনো ভারতীয় পুরুষের পক্ষে এ ধরনের ধারণায় বিশ্বাস করাটা প্রায় অসম্ভবই বটে। কিন্তু বাস্তবতা হল- ভারতে শুধু নারীরাই নন বরং পুরুষরাও ধর্ষিত হন। আর এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকে মানসিক, সামাজিক ও বিভিন্ন আইনী নিপীড়নের ইস্যুও। এমনটাই দাবি করেছেন ...

প্রতিদিন ১৫ পুরুষ এক বছর ধরে ধর্ষণ করে কিশোরীটিকে |

www.amadershomoys.com/unicode/2015/12/13/44321.htm

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৫ - অমিতাভ ভট্টশালী : ভারতের পুলিশ বলছে তারা দিল্লি থেকে এক কিশোরীকে উদ্ধার করেছে, যাকে এক বছর আগে পশ্চিমবঙ্গ থেকে অপহরণ করে বার বার ধর্ষণ করা হয়েছে। গত এক বছরে ওই কিশোরীকে দেশের বিভিন্ন শহরে ঘোরানো হয়েছে যেখানে একেক দিনে ১০ থেকে ১৫ জন পর্যন্ত পুরুষ তাকেধর্ষণ করেছে। ওই কিশোরীকে এক এইডস আক্রান্ত ব্যক্তি ধর্ষণ ...

গ্রাম্য আদালতের বিচারে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হলেন ভারতের ...

পশ্চিমবঙ্গে ধর্ষণএর ভিডিও▶ 0:46

https://www.youtube.com/watch?v=O3OxJCEwedc

২৩ জানুয়ারী, ২০১৪ - EkusheyTV21 আপলোড করেছেন

বাংলা সিনেমায় পুরুষ ধর্ষণ কান্ড !! - Duration: 1:06. Taza Khobor 154,526 views. 1:06. Adaalat আদালত Bengali Double Murder Mystery 9th June, ... কবর থেকে যুবতী নারীর ...

ভারতে চলন্ত ট্রেনে সেনারা ধর্ষণ করল কিশোরীকে - আমাদের সময়

www.dainikamadershomoy.com/2015/12/29/65430.php

২৯ ডিসেম্বর, ২০১৫ - ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ায় এবার চলন্ত ট্রেনে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী। তাকে ধর্ষণ করেছে সেনা জওয়ানরা। গতকাল এই পাশবিক কা- ঘটে। এ.

পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসিনী ধর্ষণে বাংলাদেশি গ্রেফতার

dailysylhet.com/details/various/.../পশ্চিমবঙ্গে-সন্ন্যাসিন-2/

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে কয়েক মাস আগে এক সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের ঘটনায় এক বাংলাদেশি নাগরিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই ব্যক্তির বাড়ি যশোরে। পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রাণাঘাটে একটি মিশনারি স্কুলের ওই সন্ন্যাসিনীকে এই যুবকই ধর্ষণ করেছিল বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। পশ্চিমবঙ্গে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) বরাত দিয়ে ...

পশ্চিমবঙ্গ: ৯ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ ...

bengali.oneindia.com › বাংলা › নিউজ › পশ্চিমবঙ্গ

২১ জুন, ২০১৪ - 9-yr-old girl raped, strangulated to death in West Bengal,পশ্চিমবঙ্গ: ৯ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ মন্দিরের পুরোহিতের বিরুদ্ধে.

AlordishariBD » ভারতে স্কুল ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার

www.alordisharibd.com/2016/.../ভারতে-স্কুল-ছাত্রীকে-সংঘ/

৭ জানুয়ারী, ২০১৬ - ভারতে ১৪ বছরের এক স্কুল ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ এবং তার বান্ধবীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে চার যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার উদয়নারায়ণপুরের রাজাপুর এলাকায় ওই দুই ছাত্রী গৃহশিক্ষকের কাছ থেকে বাড়ি ফেরার সময় ঘটনাটি ঘটে। কলকাতার সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা এক ...

ভারতে ধর্ষণ যেন দৈনন্দিন জীবনের অঙ্গ - DhakaTimes24

www.dhakatimes24.com/2014/05/30/25990

৩০ মে, ২০১৪ - ঢাকা: ধর্ষণ বা যৌন নিগ্রহের তালিকায় ভারত উঠে এসেছে বিশ্বের তৃতীয় স্থানে৷ কার্যত প্রতি ২২ মিনিটে ভারতের কোথাও না কোথাও.

গণশক্তি - Ganashakti

ganashakti.com/bengali/news_details.php?newsid=64684

যদিও পশ্চিমবঙ্গে ধর্ষণ, শ্লীলতাহানি বেড়েছে। ২০১২-তে পশ্চিমবঙ্গে মহিলাদের উপর অত্যাচারের ঘটনা ঘটেছিল ৬০৪৭টি। ২০১৩-তে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১৭৫-এ। ২০১৪-র রিপোর্ট এখনও প্রকাশিত হয়নি। মহানগর কলকাতায় ২০১২-র তুলনায় ২০১৩-তে ধর্ষণ, শ্লীলতাহানি বেড়েছে প্রায় ২৯ শতাংশ। ২০১২-তে মহানগরে ধর্ষণ, শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটেছিল ৯৩১টি। এবার তা ...

ভারতে বাবা-কাকা কর্তৃক ২ বছর ধরে ধর্ষিত নাবালিকা - ABnews24

abnews24.com/263-ভারতে-বাবা-কাকা-কর্তৃক-২-বছর-ধরে-ধ...

১০ জানুয়ারী, ২০১৬ - শুভদীপ বকসী, কলকাতা থেকে, ১০ জানুয়ারি, এবিনিউজ : পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার ধুপগুঁড়ি গ্রামে অভিনব এক ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যাতে বলা হয়েছে, ১৬ বছরের একটি মেয়েকে গত ২ বছর ধরে বাবা, কাকা ও দাদা মিলে ধর্ষণ করে চলেছে। ধর্ষিতার জবানীতে এই ঘটনার জেরে দুবার গর্ভবতী পর্যন্ত হয়ে গিয়েছিল সে। এই গোটা ...

The impact of the brave-heart of Delhi on our society - অবসর

www.abasar.net/UNIbibidh_newdelhi-nirbhayanew.htm

ভারতে এক জনপ্রিয় বিশ্বাস ধর্ষণ আধুনিকতা, ঔপনিবেশিক পশ্চিমী সভ্যতা, আর আগ্রাসী সংবাদ মাধ্যমের হাত ধরে আমাদের মধ্যে উপস্থিত হয়েছে । কিন্তু বাস্তব হল এ সব কিছুর বহু আগে থেকে আমাদের সমাজেধর্ষণ কিছু কম ছিল না । সত্যি কথা বলতে কি, আমাদের দেশের বহু সমাজব্যব্স্থা ও সংস্কৃতির মধ্যে মেয়েদের যৌন অত্যাচারের সম্ভাবনার স্বীকৃতি রয়েছে ...

'নান' ধর্ষণ তদন্তে বাংলাদেশে আসতে চায় পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি

tazakhobor.org/bangla/international/42650-2015-03-28-16-30-52

২৮ মার্চ, ২০১৫ - পশ্চিমবঙ্গ স্বরাষ্ট্র দপ্তরের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে অনুমতি চেয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রকে চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে নবান্ন সুত্রে জানা গেছে। এই ঘটনার তদন্তে ইতিমধ্যেই একজন বাংলাদেশিসহ দুজনকে গ্রেপ্তারের পর জেরায় জানা গেছে, গত ১৪ই মার্চ কনভেন্ট স্কুলে লুটপাট ও ধর্ষণের ঘটনায় যুক্তদের অধিকাংশই সীমান্ত পেরিয়ে ...

ভারতে আবারও গাড়িতে ৯ম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ | 24bdtimes.com

www.24bdtimes.com/ভারতে-আবারও-গাড়িতে-৯ম-শ্/

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :ভারতে এবার নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে এক তরুণ কর্তৃক অপহরণের পর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ১৫ বছরের ওই ছাত্রী তার টিউশন ক্লাসে যাওয়ার সময় ১৭ বছরের এক তরুণ প্রথমে তাকে অপহরণ করে। পরে ওই তরুণ তার গাড়িতেই ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। গোহানা-দিল্লি সড়কে ৭ জানুয়ারি সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে বলে ...

The Bangla Times: পশ্চিমবঙ্গে ৫ মেয়েকে ধর্ষণ মামলায় বাবা ...

www.bangla-times.info/2013/08/blog-post_1.html

১ আগস্ট, ২০১৩ - পশ্চিমবঙ্গে ৫ মেয়েকে ধর্ষণ মামলায় বাবা গ্রেপ্তার ! নিজের পাঁচ মেয়েকে ধর্ষণ করার অভিযোগে বাবুলাল ধাকার নামে ৬৪ বছরের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ। একই সাথে তার বিরুদ্ধে তিন বছরের এক নাতনিকেও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে।খবর ইয়াহু নিউজ এর। বুধবার পশ্চিমবঙ্গের ভরতপুরের বায়ান শহর থেকে তাকে ...

পশ্চিমবঙ্গে সন্ন্যাসিনী ধর্ষণে আটক যশোরের নজু | Daily ...

dailyspandan.com/?p=69599

নিজস্ব প্রতিবেদক: পশ্চিমবঙ্গে কয়েক মাস আগে এক সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের ঘটনায় এক বাংলাদেশি যুবককে গ্রেফতার করেছে সে দেশের পুলিশ। গ্রেফতার হওয়া যুবকের বাড়ি যশোরে। নদীয়া জেলার রাণাঘাটে একটি মিশনারি স্কুলের ওই সন্ন্যাসিনীকে এই যুবকই ধর্ষণ করেছিল বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি বলছে, বুধবার রাতে গোপন সূত্রে ...

ধর্ষণ ঠেকাতে পশ্চিমবঙ্গের নারীদের হাতে থাকবে মরিচের গুঁড়ার ...

cdnews24.com/?p=10497

২৭ জানুয়ারী, ২০১৪ - ধর্ষণ ঠেকাতে পশ্চিমবঙ্গের নারীদের হাতে থাকবে মরিচের গুঁড়ার স্প্রে ক্যান. সিডি নিউজ২৪.কম, ডেক্স ২৭ জানুয়ারি : ভারতের ধর্ষণের ঘটনা রীতিমত চরমে উঠেছে। প্রতিদিন কোথাও না কোথাও ধর্ষণের ঘটনা ঘটে চলছে। ধষর্ণ কিংবা যেকোন ধরনের নারী নির্যাতন ঠেকাতে দেশটিতে আইনগতভাবে কঠোর ব্যবস্থা নিলেও কমছে না এই নির্যাতনের ...

মমতা মুসলিমদের খুশি করতে আমাকে পশ্চিমবঙ্গে ঢুকতে দিচ্ছেন ...

www.bdmorning.com › আন্তর্জাতিক

... কামরুল 'শয়তানের দূত' · প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » মমতা মুসলিমদের খুশি করতে আমাকে পশ্চিমবঙ্গেঢুকতে দিচ্ছেন নাঃ তসলিমা ... তিনি বলেন, 'স্রেফ ইসলাম ধর্মাবলম্বী মুসলিম সম্প্রদায়কে খুশি করার জন্যই সরকার আমার পশ্চিমবঙ্গে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে রেখেছে।' তসলিমা বলেন, 'ভারতের .... '২২ ঘণ্টার মধ্যে আমাকে ১১০ জন পুরুষ ধর্ষণ করে' ...

রাজ্যে চার্জশিটই হয়নি চার হাজার ধর্ষণের মামলার

archives.anandabazar.com/archive/1121225/25raj1.html

পুলিশ সূত্রে খবর, এই পরিসংখ্যান পেয়ে ডিজি নপরাজিত মুখোপাধ্যায় জেলার পুলিশ সুপারদের বলেছেন, ধর্ষণ-মামলায় দ্রুত চার্জশিট দাখিল না করলে তদন্তকারী অফিসারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। স্টেট ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর ... ধর্ষণ-মামলার জন্য পৃথক 'সেল' নেই। দেরি হচ্ছে এই সব কারণেই। ... যদিপশ্চিমবঙ্গে ধর্ষণ কিংবা ইভ টিজিংয়ের ঘটনা ঘটে, সে ...

Bangali Hindu Post(বাঙ্গালি হিন্দু পোস্ট): ভারতের ৮০% ধর্ষণ ...

bangalihindupost.blogspot.com/2015/07/blog-post.html

৩ জুলাই, ২০১৫ - ভারতের ৮০% ধর্ষণ করে মুসলিমরাঃ উপাত্তসহ বিশ্লেষণ. বাংলাদেশী মুসলিমদের মতে ভারত ধর্ষকদের দেশ। গত এক মাসে(জুন) পশ্চিমবঙ্গে নারীর ওপর ঘটে যাওয়া সহিংস কিছু ঘটনা, যা আমার দৃষ্টি গোচর হয়েছে, তা আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। খবর গুলির একটি বাদে সব কটিই এবিপি আনন্দ এবং 24 ঘণ্টা হতে সংগৃহীত। 1/6/15- কলকাতার আর জে কর ...

অবশেষে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ধরা পড়ল ভূত!

bhinno.com/archives/2567

অবশেষে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ধরা পড়ল ভূত! Ayon Chowdhury জানুয়ারী ২০, ২০১৬ অবাক বিশ্ব ৬,৬৬৪ Views ... তখনই কিছু সাহসী যুবকের উদ্যোগে অবশেষে ধরা পড়ল ভূতবাবাজি। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে রাঁচির নামকুম থানার সিদরোল গ্রামে। ... এবার ১৭ জন ছাএী মিলে ধর্ষণ করল এক জন ছেলেকে. জানুয়ারী ২০, ২০১৬. মাত্র ৬২ জনের হাতে বিশ্বের অর্ধেক ...

ভারতে অন্ধ নারীভক্ত ধর্ষণের চেষ্টায় সাধু আটক - Banglanews24

www.banglanews24.com/fullnews/bn/379199.html

২৩ মার্চ, ২০১৫ - ভারতের অন্ধপ্রদেশে ক'দিন আগে নারী ভক্ত দেখলেই জড়িয়ে ধরে চুমু খাওয়ার অভিযোগে এক 'বাবা' আটক হয়েছিলেন। এবার পশ্চিমবঙ্গে এক নারী ভক্তের অন্ধত্বের সুযোগ নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে এক ভণ্ড সাধুকে আটক করা হয়েছে।

কুচবিহারে কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ, ধর্ষণের অভিযোগ - Tista News 24

tistanews24.com › ওপারবাংলা

২ দিন আগে - তিস্তা নিউজ ওয়েব ডেস্ক : ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ১০ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পরে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ছাত্রীটির পরিবার। পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার ... ওই কিশোরীর পরিবার এবং গ্রামের বাসিন্দাদের অভিযোগ যে ধর্ষণ করে খুন করে দেহটি ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে, যাতে আত্মহত্যা বলে মনে হয়। print. 0 Comments.

বাবা দু'বছর ধরে ধর্ষণ করছে কিশোরী মেয়েকে! - newsnextbd.com

bangla.newsnextbd.com/article159473.nnbd/

বাবা দু'বছর ধরে ধর্ষণ করছে কিশোরী মেয়েকে! Sunday, 12 April 2015 12:38; // নিউজনেক্সটবিডি ডটকম · মন্তব্য করুন. Rep-06. // আন্তর্জাতিক · লিংক. // কিশোরী মেয়ে, গ্রেফতার করেছে পুলিশ, ধর্ষণ,পশ্চিমবঙ্গে · Print Friendly Version of this page ... ভারত: ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরীকে গত দুবছর ধরে ধর্ষণ করে আসছে তার বাবা। এছাড়া চাচা এবং ভাইয়ের ...

ভারতে অপরাধ মূলক ঘটনার বিষয়ে রিপোর্ট - ভিওএ

www.voabangla.com/content/india-crimes-report.../2925599.html

২০ আগস্ট, ২০১৫ - ভারতের National Crime Record Bureau জানিয়েছে ভারতের বড় বড় শহরগুলোর মধ্যে চেন্নাই ছাড়া কলকাতাতেই সবচাইতে কম অপরাধ মূলক তৎপরতা ঘটে। তবে পশ্চিমবঙ্গে ধর্ষণ ও হত্যার প্রচেষ্টা বেশি হয়। সে বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন কলকাতা থেকে প্রতিবেদক গৌতম গুপ্ত।

'যতদিন পৃথিবী ততদিন ধর্ষণ' | বিশ্ব | Samakal Online Version

archive.samakal.net/2014/08/29/82253

২৯ আগস্ট, ২০১৪ - পশ্চিমবঙ্গে ফের বিতর্কে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক। বুধবার কলকাতার ডায়মন্ড হারবারে তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক দীপক হালদার প্রকাশ্য জনসভায় ঘোষণা করেন_ আগেও ধর্ষণহতো, এখনও ধর্ষণ হয়। যতদিন পৃথিবী টিকে থাকবে ততদিন ধর্ষণও হবে। তার এমন মন্তব্যে ভারতে তোলপাড় শুরু হয়েছে। বিরোধী দলসহ অনেকে তার সমালোচনায় ...



কিছু কি বদলাইয়াছে?


আজকালের প্রতিবেদন,গৌতম মণ্ডল: মেয়ের খুনিদের শাস্তির দাবি–সহ বেশ কিছু প্রশ্ন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে খোলা চিঠি লিখলেন কাকদ্বীপের নির্যাতিতার মা৷ শনিবার সকালে ডাক মারফত এই চিঠি নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে৷ কাকদ্বীপ চৌরাস্তার মোড়ে ১৬টি বাম মহিলা, ছাত্র, যুব সংগঠনের ডাকে রাজ্যের নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে কাকদ্বীপ থেকে কামদুনি পর্যন্ত সাইকেল জাঠার সূচনায় প্রকাশ্য সভায় এই চিঠি পড়ে শোনান নির্যাতিতার মা৷ এই চিঠিতে নির্যাতিতার মা লিখেছেন, 'আমার ফুলের মতো নিষ্পাপ মেয়েটির এই পরিণতির জন্য দায়ী কারা? আমার মতো প্রত্যেক মা তাঁর মেয়ের জন্য উৎকণ্ঠায় বসে থাকেন৷ আমিও ২০ নভেম্বর সন্ধেয় বসেছিলাম৷ কিন্তু মেয়ে আর ফিরল না৷' এই চিঠিতে আরও পাঁচটি প্রশ্ন তুলেছেন নির্যাতিতার মা৷ সেই প্রশ্নের উত্তরের অপেক্ষায় থাকবেন বলে জানিয়েছেন এক মৎস্যজীবী পরিবারের স্বল্প শিক্ষিত বধূ৷ আগামী দু'দিন জাঠার যাত্রাপথে ২ লক্ষ এই চিঠি বিলি করবেন বাম কর্মী–সমর্থকরা৷ মেয়ের নৃশংস খুনের ঘটনা বলতে গিয়ে মঞ্চে কান্নায় ভেঙে পড়েন নির্যাতিতার মা–বাবা৷ পতাকা নেড়ে এদিনের জাঠার সূচনাও করেন নির্যাতিতার মা৷ জাঠা শুরুর আগে সভায় বক্তৃতা করেন মহিলা নেত্রী অঞ্জু কর, মিনতি ঘোষ, চন্দনা ঘোষ দস্তিদার, সরস্বতী দাস, মধুজা সেন রায় ও সায়নদীপ মিত্র৷ প্রত্যেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে কড়া ভাষায় সমালোচনা করেন৷ অঞ্জু কর বলেন, 'আমাদের রাজ্যের প্রথম মহিলা মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি৷ অথচ এই মুখ্যমন্ত্রীর আমলে রাজ্য মহিলাদের কাছে জঙ্গলের রাজত্বে পরিণত হয়েছে৷ পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণের পর মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন সাজানো ঘটনা৷ শুক্রবারের রায়ের পর মুখ্যমন্ত্রী কি ওই পরিবার এবং সারা রাজ্যের মানুষের কাছে ক্ষমা চাইবেন৷ ধূপগুড়ি থেকে কাকদ্বীপ কোনও নির্যাতনের বিচার হচ্ছে না৷ উল্টে অপরাধীদের আড়াল করা হচ্ছে৷' মিনতি ঘোষ বলেন,"কাটোয়ার নির্যাতিতা অপরাধীদের চিহ্নিত করেছিলেন৷ তার পরও অভিযুক্তরা বেকসুর খালাস পেয়ে গেল৷ এই রাজ্যের পুলিস থেকে সরকার কেউ চায় না অপরাধীরা সাজা পাক৷ সরকার চায় দোষীদের আড়াল করতে৷' এস এফ আই রাজ্য সভা নেত্রী মধুজা সেন রায় বলেন, 'রাজ্যে সাম্প্রতিককালে ছাত্রীদের ওপর অত্যাচার বেড়ে গেছে৷ ধূপগুড়ি, কামদুনি, কাকদ্বীপ সবক্ষেত্রে ছাত্রীদের ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে৷ এরা প্রত্যেকেই পিছিয়েপড়া অংশ থেকে উঠে আসছিল৷ সরকার চায় না এই অংশের মেয়েরা এগিয়ে আসুক৷' ২০০–র বেশি ছাত্র-যুব সাইকেলে ১৩০ কিমি পথ অতিক্রম করবেন৷ সোমবার জাঠা শেষ হবে কামদুনিতে৷ এই দীর্ঘ সাইকেল যাত্রার পথে জায়গায় জায়গায় একাধিক ছোট সভা করবেন বাম নেতৃত্ব৷


কিছু কি বদলাইয়াছে?

হুবহু কামদুনির ছায়া কাকদ্বীপে!

আজকালের প্রতিবেদনঃগৌতম মণ্ডল: কামদুনির ছায়া এবার কাকদ্বীপে৷ অভিযোগ, এখানেও এক কিশোরীকে প্রাইভেট টিউশন থেকে ফেরার পথে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে৷ শুক্রবার রাতে লট নং-৮ কোস্টাল থানার সুভাষনগর এলাকা থেকে ওই ছাত্রীর দেহ উদ্ধার হয়৷ কাকদ্বীপের দক্ষিণ হরিপুরের ভ্যানচালক অভাবী পরিবারের মেয়ে সে। এবারে মাধ্যমিক দিত মেধাবী ওই ছাত্রী৷ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে স্থানীয় বুদ্ধপুরের বাসিন্দা গোপাল হাজরা নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস৷ পেশায় ভ্যানচালক বছর চল্লিশের গোপাল এর আগেও একাধিক মহিলা–ঘটিত অপরাধে অভিযুক্ত৷ ঘটনায় আরও বেশ কয়েকজন জড়িত বলে অভিযোগ৷ পুলিস ইতিমধ‍্যেই খুনের মামলা রুজু করেছে ৷ ময়নাতদন্তের রিপোর্টে প্রমাণ মিললে ধর্ষণের মামলাও রুজু করা হবে৷ ধৃতকে শনিবার কাকদ্বীপ মহকুমা আদালতে তোলা হলে ৯ দিনের পুলিস হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক৷ শুক্রবার সন্ধেয় স্থানীয় দাসপাড়ায় টিউশন পড়তে বেরিয়েছিল মেয়েটি৷ প্রতিদিন ফেরে সন্ধে সাতটা নাগাদ৷ কিন্তু এদিন রাত দশটা বেজে গেলেও বাড়ি না ফেরায় উৎকণ্ঠা বাড়তে থাকে৷ রাতেই কাকদ্বীপ থানায় মিসিং ডায়েরি করে পরিবার৷ এর মধ্যে সুভাষনগর এলাকার এক বধূ শৌচাগারে যাওয়ার জন্য রাত দেড়টা নাগাদ বাড়ির বাইরে বের হন৷ তিনি দেখেন এক কিশোরীর রক্তাক্ত দেহ ফেলে রেখে পালিয়ে যাচ্ছে কয়েকজন৷ রাতেই কাকদ্বীপ থানায় দেহ পড়ে থাকার খবর যায়৷ শ্বাসরোধ করে ছাত্রীকে খুন করা হয়েছে বলে পুলিসের প্রাথমিক অনুমান৷ শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্নও মিলেছে৷ প্রতিবেশীদের অভিযোগ, ছাত্রীকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে৷ গোপাল হাজরা নামে এক প্রতিবেশীকে আবছা চিনতে পেরেছিলেন ওই বধূ৷ সেই মোতাবেক গোপালের বাড়িতে হানা দেয় পুলিস৷ গোপালের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে রক্তমাখা বালিশ, বিছানার চাদর ও ছাত্রীর ওড়না৷ পাওয়া গিয়েছে একটি ইলেকট্রিক তার৷ যে তার দিয়ে গলা পেঁ‍চিয়ে খুন করা হয়েছে৷ রাতেই গোপালকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিস৷ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গোপাল অপরাধের কথা স্বীকার করেছে বলে পুলিসের দাবি৷ এদিনের ঘটনার কথা জানাজানি হতেই রাতে গ্রামে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে৷ অন্য দিকে একমাত্র মেয়ের নৃশংস খুনের ঘটনায় ছাত্রীর পরিবার অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি তুলেছেন৷ প্রতিবেশীদের অভিযোগ, এই ঘটনায় শুধু গোপাল নয়, একাধিক ব্যক্তি জড়িত৷ কারণ, বেশ কয়েক মাস ধরে ছাত্রীকে স্কুলে যাওয়ার পথে উত্ত‍্যক্ত করে আসছিল এই গোপাল, অশোক হালদার–সহ বেশ কয়েকজন৷ কিন্তু অভাবী পরিবারের ছাত্রীটির প্রতিবাদ করেও কোনও লাভ হয়নি৷ ছাত্রীর সহপাঠী এক প্রতিবেশী ছাত্র জানায়, 'প্রায়শই গোপাল, অশোকরা রাস্তায় ওকে উদ্দেশ্য করে নানান কু–ইঙ্গিত করত৷ কিন্তু ভয়ে কেউ মুখ খুলত না৷' ধর্ষণের মামলা রুজুর দাবিতে এদিন দুপুরে নিহত ছাত্রীর স্কুলের পড়ুয়ারা কাকদ্বীপ থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান৷ ডায়মন্ডহারবারের দলীয় জাঠায় এসে এই খবর শুনে হাসপাতাল মর্গে চলে আসেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র৷ তিনি নিহত ছাত্রীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন৷ ঘটনার তীব্র নিন্দা করে সূর্যকান্ত বলেন, 'কামদুনির ছায়া ক্রমশ দীর্ঘতর হচ্ছে৷ কাকদ্বীপে ছাত্রীকে ধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় পুলিস ধর্ষণের অভিযোগ নিতে চায়নি৷ এটা মুখ্যমন্ত্রীর কন্যাশ্রী প্রকল্পের দৃষ্টান্ত৷ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা৷ তাঁরই মা–মাটি–মানুষের সরকার মা সমান মহিলাদের মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিচ্ছে৷ সংবেদনশীলতার সঙ্গে যে পুলিস অফিসার ধর্ষণের মামলা নেয়নি তাঁকে খুঁজে বের করে অবিলম্বে দৃৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করুক৷'


সেই স্মৃতি ফিরে আসে বার বার

দ্বিতীয় বর্ষের এক কলেজছাত্রীকে গণধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় ক্ষোভের আগুনে জ্বলতে থাকা বারাসতের কামদুনি জনপদ ঢুকতেই দিল না মন্ত্রী, সাংসদ, বিধায়ক ও নেতাদের। দলমত নির্বিশেষে, রাজনৈতিক রঙের ঊর্ধ্বে উঠে স্থানীয় বাসিন্দারা সমস্বরে জানিয়ে দিলেন, তাঁরা নেতা-মন্ত্রী-রাজনীতি চান না। চান নিরাপত্তা ও দোষীদের শাস্তি। এমনকী, শনিবার রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক এলাকায় গিয়ে ওই ছাত্রীর পরিবারকে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার কথা বলতেই যেন আগুনে ঘি পড়ল। ক্ষুব্ধ স্থানীয় মানুষ গলা চড়িয়ে মন্ত্রীকে পাল্টা জানিয়ে দেন, দ্বিগুণ টাকা তুলে তাঁরা মন্ত্রীকে দেবেন। তিনি যেন অবিলম্বে ফিরে যান। ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় পুলিশ এ পর্যন্ত তিন জনকে গ্রেফতার করেছে। তাদের মধ্যে মূল অভিযুক্ত স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধানের ঘনিষ্ঠ বলে অভিযোগ। কেবল জ্যোতিপ্রিয়বাবুই নন, শনিবার দুপুরে হাজার দুয়েক মানুষের প্রবল বাধার জেরে ধর্ষিতা ও নিহত ওই কলেজছাত্রীর পাড়ায় ঢুকতে না পেরে ফিরে যেতে বাধ্য হন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ হাজি নুরুল ইসলাম এবং শাসক দলের ওই জেলার কয়েক জন বিধায়ক ও নেতা। ক্ষিপ্ত জনতা সাংসদের এসইউভি-ও ভাঙচুর করে। পুলিশের বিশাল বাহিনী সঙ্গে থাকলেও এ দিন জনতার বিক্ষোভে নেতা-মন্ত্রীদের নিতান্তই অসহায় লেগেছে। শুক্রবার রাতে ওই তরুণীর ক্ষতবিক্ষত, রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের পর শুরু হওয়া পথ অবরোধ শনিবার সন্ধ্যাতেও পুলিশ তুলতে পারেনি। উল্টে অবরোধকারীদের একাংশ হুমকি দেয়, মৃতদেহ নিয়ে কালীঘাটের হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে যাবেন। দেহ ডিরোজিও কলেজে নিয়ে যাওয়ার পরে ১২৫ জনের একটি দল মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ হস্তক্ষেপ করে ও তাঁদের নিমতলা শ্মশান ঘাটে পাঠানো হয়। এ দিন রাতেই পুলিশ তিন জনকে গ্রেফতার করলেও মানুষের ক্ষোভ তাতে প্রশমিত হয়নি। অবিলম্বে দোষীদের ফাঁসির দাবি তুলে দেহ সৎকার করতে অস্বীকার করেন মৃতার আত্মীয়স্বজন ও পড়শিরা। নিমতলা ঘাটে পঞ্চাশ জনেরও বেশি পুলিশ-কর্তা ও পুলিশকর্মী তাঁদের বোঝানোর চেষ্টা চালান। অবশেষে রাত সাড়ে বারোটা নাগাদ শুরু হয় অন্ত্যেষ্টি। ক্ষোভের তীব্রতা বুঝতে পেরে শনিবার রাতেই বারাসত-কাণ্ডের তদন্তভার সিআইডি-কে দেওয়া হয়েছে। একের পর এক ঘটনা ঘটলেও মহিলাদের উপর অত্যাচারের ক্ষেত্রে বারাসতের বদনাম যে কিছুতেই ঘুচছে না, শুক্রবার কামদুনির ঘটনা তা আরও এক বার দেখিয়ে দিল। যেখানে ওই ঘটনা ঘটেছে, কলকাতা থেকে সেই জায়গা ২০ কিলোমিটারের মধ্যে। ঠিক কী ঘটেছিল ওই দিন? প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের সন্দেহ, ডিরোজিও কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রীকে রাস্তা থেকে তুলে একটি পাঁচিলঘেরা জায়গায় একটি ঘরের মধ্যে নিয়ে গিয়ে অন্তত তিন-চার জন ধর্ষণ করে। তরুণীটি তাদের চিনে ফেলতে পারে এই ভয়ে প্রথমে গলা টিপে, পরে দুঽপা দুঽদিক থেকে চিরে ফেলে খুন করা হয়। দুষ্কৃতীরা অপরাধের পর কেরোসিন দিয়ে রক্তের দাগ মোছার চেষ্টা করে। পুলিশের বক্তব্য, ওই ছাত্রীর উপর এতটাই পাশবিক অত্যাচার চালানো হয়েছিল যে পরে তাঁর অন্তর্বাস ছিন্নভিন্ন হয়ে এ দিক ও দিক ছড়িয়ে পড়ে। বই, কাগজপত্র, ক্লিপ বোর্ড-সহ তাঁর ব্যাগটি উদ্ধার করা হয় পাশের ভেড়ি থেকে। কামদুনির বাসিন্দা ওই ছাত্রীর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা চলছিল। সিট পড়েছিল লেক টাউনের ইস্ট ক্যালকাটা গার্লস কলেজে। এমনিতে বাড়ি থেকে দুঽকিলোমিটার দূরে কামদুনি বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত ওই ছাত্রী সাইকেলে যেতেন। স্ট্যান্ডে সাইকেল রেখে সেখান থেকে বাস ধরতেন। কিন্তু শুক্রবার এক পরিচিতকে পেয়ে যাওয়ায় তাঁর মোটরবাইকে করে তিনি সকালে বাড়ি থেকে বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত চলে যান। পরীক্ষা দিয়ে দুপুরে বাসস্ট্যান্ডে নেমে ওই ছাত্রী টিপ টিপ বৃষ্টির মধ্যে হেঁটেই বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। তদন্তকারীদের বক্তব্য, কামদুনি-বিডিও অফিস-মধ্যমগ্রাম সড়ক এমনিতেই সুনসান। বৃষ্টির জন্য তা আরও ফাঁকা ছিল। তারই সুযোগ নেয় দুষ্কৃতীরা। বাসস্ট্যান্ড থেকে সাড়ে তিনশো মিটার মতো এগোতেই একটি কারখানার জন্য নেওয়া আট ফুট উঁচু পাঁচিল ঘেরা আট বিঘা জমি। ভিতরে তিনটি পাকা ঘর, একটি শৌচাগার। একটি পাকা ঘরে একটি তক্তপোশ। ওই ঘরেই থাকত জমির কেয়ারটেকার আনসার আলি মোল্লা। কারখানার জন্য নেওয়া ওই ঘেরাটোপে বাইরে থেকে মহিলাদের এনে দেহব্যবসাও চলত বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ। ধৃত তিন জনের মধ্যে এক জন ওই আনসার আলি মোল্লা। সে স্থানীয় কীর্তিপুর-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধান সাইদা বিবির আত্মীয় বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি। সাইদা বিবি এই ব্যাপারে কোনও কথা বলেননি। তবে তাঁর স্বামী, তৃণমূলের কীর্তিপুর-২ নম্বর অঞ্চলের সভাপতি আসরাফ আলি মোল্লা বলেন, "আনসার মোটেই আমাদের আত্মীয় নয়, তবে সে আমাদের গ্রামের ছেলে।" কিন্তু শুক্রবার রাত থেকে এত কাণ্ডের পরেও পঞ্চায়েত প্রধান ও তাঁর স্বামী, কাউকেই এলাকায় দেখতে পাওয়া যায়নি। এই ব্যাপারে আসরাফের বক্তব্য, "অনেক নেতা-মন্ত্রী গিয়েছিলেন। আমাদের কিছু কাজও ছিল।" বাসিন্দাদের অভিযোগ, আনসারের আত্মীয় বলে বিক্ষোভের মুখে পড়ার ভয়েই ওই দম্পতি শুরু থেকে দূরে থেকেছেন। আনসার ছাড়াও ওই ঘটনায় মহম্মদ নুর ও আমিন নামে লাগোয়া মাটিয়াগাছা গ্রামের দুই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। অতীতেও পুলিশ ওই দুঽজনকে তোলাবাজি, মারধর, লুঠপাটের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করেছিল। আরও দুঽজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, আনসারের ঘরের অবস্থান এমনই যে, সেখানে বসলে বাইরের রাস্তা দিয়ে কে যাতায়াত করছে, তা পরিষ্কার দেখা যায়। জনমানবশূন্য এলাকায় ওই ছাত্রীকে জবরদস্তি ওই জমির চৌহদ্দির ভিতর ঢুকিয়ে নিতে দুষ্কৃতীদের বেগ পেতে হয়নি। পুলিশ জেনেছে, ভিতরের ঘরে তক্তপোশের উপর ওই ছাত্রীর উপর যখন নারকীয় অত্যাচার চলছে, সেই সময়েই তাঁর ছোট ভাই দিদির খোঁজে ওই রাস্তা ধরে জমির সামনে দিয়ে ছোটাছুটি করছেন। কিন্তু তাঁর পক্ষে কিছু টের পাওয়া সম্ভব ছিল না। তদন্তকারীরা মনে করছেন, আনসারকে চিনে ফেলার কারণেই ওই ছাত্রীকে খুন করা হয়। তার পর দেহ টেনেহিঁচড়ে নিয়ে গিয়ে পাঁচিলের বাইরে ছুড়ে ফেলার চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। কিন্তু সেটা না-পেরে শেষমেশ পাঁচিলের নীচে গর্ত দিয়ে দেহ বার করে পাশের জমিতে ফেলে দেওয়া হয়। সন্ধের পরেও মেয়ে ফিরছে না দেখে তরুণীর বাবা-জ্যাঠা-ভাই এবং আত্মীয়রা বাড়ি থেকে কামদুনি-মধ্যমগ্রাম সড়ক ধরে কামদুনি বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। এমনকী, খুঁজতে খুঁজতে ওই পাঁচিল ঘেরা জমিতে গেলে কেয়ারটেকার আনসার নিজে তালা খুলে তাঁদের ঢুকতে দিয়ে জানায়, সেখানে কিছুই নেই। বাড়ির লোকজনও সেই সময়ে কিছু পাননি। পরে খোঁজাখুঁজি করতে গিয়ে জমির অন্য ধারে ওই তরুণীর ক্ষতবিক্ষত, অধর্নগ্ন দেহ খুঁজে পান তাঁর ছোট ভাই। তখন রাত আটটা। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, তখনই রাজারহাট থানার পুলিশকে ফোন করে খবর দেওয়া হয়, কিন্তু ও প্রান্ত থেকে দায়সারা ভাবে বলা হয়, 'দেখছিঽ। পুলিশ সূত্রের খবর, ঘটনাস্থল যে তাঁদের এলাকার মধ্যে পড়ছে না, সেটা জেনেই দায় ঝেড়ে ফেলার চেষ্টা করে রাজারহাট থানার পুলিশ। গত ৫ জুন দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে পরিষ্কার জানিয়ে দেন, মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধ হলে অভিযোগ নেওয়ার ক্ষেত্রে পুলিশকে সংবেদনশীল ও সচেতন হতে হবে। কিন্তু সেটা যে কিছুতেই হচ্ছে না, বারাসতের ঘটনা ফের তা দেখাল। পুলিশে প্রথম ফোন যাওয়ার তিন ঘণ্টা পরে, রাত ১১টা নাগাদ বারাসত থানার অন্তর্গত আমিনপুর তদন্তকেন্দ্র থেকে পুলিশের একটি দল এলাকায় পৌঁছায়। কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দাদের ছোঁড়া ইটবৃষ্টির মুখে পড়ে তখনকার মতো হটে যায় পুলিশ। এক ঘণ্টা পরে, রাত ১২টা নাগাদ বারাসত ও রাজারহাট থানার পুলিশ এবং র্যাফের বিশাল বাহিনী ঘটনাস্থলে যায়। রাস্তায় ততক্ষণে অবরোধ শুরু করে দিয়েছে ক্ষিপ্ত জনতা। গাছের গুঁড়ি ফেলে, টায়ার রেখে ওই পথ অবরোধে সামিল হন এলাকার অনেক মহিলাও। অবরোধকারীদের এক জনের কথায়, "সিপিএম-তৃণমূল বুঝি না। আমরা দোষীদের ফাঁসি চাই আর আমাদের নিরাপত্তা চাই।" রাতের ওই ক্ষোভ সকালে নেতা-মন্ত্রীদের এলাকায় ঢোকার চেষ্টা দেখে আরও বেড়ে যায়। সকাল ৯টা নাগাদ সাংসদ হাজি নুরুল ইসলামকে নিয়ে ক্ষোভ তুঙ্গে ওঠে। কারণ, বাসিন্দাদের অভিযোগ, সাংসদ পুলিশকে লাঠিচার্জ করে অবরোধ হটিয়ে দিতে নির্দেশ দেন। ওই ক্ষোভের জেরেই তাঁর গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চলে। সাংসদ অবশ্য দাবি করেন, "আমি এ রকম কোনও কথা বলিনি। সিপিএম কৌশলে এ সব করে আমাদের বদনাম করছে।" বেলা ২টো নাগাদ মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক গেলে তাঁর কাছেও সাংসদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান বিক্ষুব্ধ মানুষ। জ্যোতিপ্রিয় বোঝানোর চেষ্টা করেন, সাংসদ যদি এ রকম বলে থাকেন, তবে তিনি ভুল করেছেন। মন্ত্রী বলেন, "মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে আমি আর্থিক সাহায্যের কথা বলতে এসেছি। তা ছাড়া, ওই ছাত্রীর পরিবারের এক জনকে চাকরিও দেওয়া হবে।" ব্যস। আগুনে যেন ঘৃতাহুতি পড়ে। ক্ষুব্ধ জনতা চিৎকার করে মন্ত্রীকে বলে দেয়, "আপনার অর্থসাহায্য আপনি নিয়ে যান। এর দ্বিগুণ টাকা আমরা তুলে আপনাকে দেব। আপনি এখান থেকে চলে যান। কত টাকা লাগবে বলুন? আপনি তো মেয়েটাকে ফেরত দিতে পারবেন না। আমরা নিরাপত্তা চাই। দোষীদের শাস্তি চাই। নেতা-মন্ত্রী-রাজনীতি চাই না।" ১৫ মিনিট চেষ্টা করার পরেও ঢুকতে না-পেরে রণে ভঙ্গ দিতে বাধ্য হন জ্যোতিপ্রিয়। ঘুরপথে অবশ্য সিপিএমের মহিলা সমিতির পক্ষ থেকে রেখা গোস্বামী, রমলা চক্রবর্তীরা ওই ছাত্রীর বাড়িতে যান। ডিরোজিও কলেজের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নেতা প্রীতম ধর, এসএফআইয়ের পৌলোমী সেনগুপ্তরাও যান। তাঁরা জানান, কলেজে এ দিন কালো ব্যাজ পরে ধিক্কার দিবস পালন করা হয়েছে। মহিলা সমিতির নেত্রীরা ওই ছাত্রীর বাড়ি থেকে বেরিয়ে বারাসত থানা ঘেরাও করেন এবং তাঁদের হাতে আইসি-কে হেনস্থা হতে হয় বলেও অভিযোগ। বিজেপি এবং এসইউসি-ও থানায় এই নিয়ে বিক্ষোভ দেখায়। রাতে ওই ছাত্রীর বাড়িতে যান বিধানসভার বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র। তিনি নিহত ছাত্রীর মা-বাবার সঙ্গে কথা বলেন। পরে সূর্যবাবু বলেন, "নিহত ছাত্রীর পরিবার মনে করছেন, দোষীদের কাউকে কাউকে আড়াল করার চেষ্টা হতে পারে। কিন্তু সেটা যাতে না-করা হয়, তার জন্য আমরা যত দূর যাওয়ার প্রয়োজন, যাব।" ওই ছাত্রীর প্রাণ ও সম্মানের বিনিময়ে কামদুনিতে একটি পুলিশ ক্যাম্প করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরে মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকও স্বীকার করেন, এলাকায় নোংরা কাজকর্ম বেশ কিছু দিন ধরেই চলছিল, মহিলাদের অপমান করা হত। কিন্তু পুলিশ-প্রশাসন কোনও ব্যবস্থা নেয়নি কেন? মন্ত্রী অবশ্য এই প্রশ্ন এড়িয়ে যান। বারাসতে গণধর্ষণের পরে ছাত্রীকে খুনের ঘটনা নিয়ে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক বিমান বসু বলেন, "বারাসতে যা ঘটেছে, তার নিন্দার ভাষা নেই। কী হচ্ছে রাজ্যে? যে মারা গিয়েছে, তার বাবা রাজমিস্ত্রি। প্রথম প্রজন্মের ছাত্রী ছিল। তাকে নৃশংস ভাবে খুন হতে হল। এর বিহিত হওয়া দরকার।" এই ঘটনার পর রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে তাঁর মতামত কী? জবাবে বিমানবাবুর কটাক্ষ, "রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুব সুন্দর। কলেজ থেকে ফেরার পথে ছাত্রীকে খুন হতে হয়। মিষ্টি মিষ্টি কথা না বলে দেখা উচিত যাতে, এমন ঘটনা আর না ঘটে।" প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন, "ওই ঘটনার পরে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে থেকে কঠোর মন্তব্য পাব আশা করেছিলাম। পাইনি। মুখ্যমন্ত্রী নিজে মহিলা হয়েও প্রশাসনকে ব্যবহার করে এ রাজ্যকে নারী নির্যাতনে প্রথম করার চেষ্টা করছেন দেখে বিস্মিত হচ্ছি।" এ দিন কামদুনি এলাকায় অনেক কচিকাঁচা সাদা কাগজে প্যাস্টেল রং দিয়ে পোস্টার তৈরি করে বিক্ষোভে সামিল হয়েছিল। সেখানে লেখা ছিল, 'রাজনীতি চাই না, বিচার চাই,ঽ 'দিদির দাহ চাই নাঽ। ছাত্রীর যে-ব্যাগ পুলিশ উদ্ধার করেছে, তার মধ্যে একটি খাতার উপর তাঁর নিজের হাতে লেখা ছিল, 'ভগবান সহায়ঽ। শুক্রবার অবশ্য ভগবান তাঁর সহায় হননি।

http://melbondhon.yours.tv/t1117-topic

 

ভারতের ধর্ষণ বৃত্তান্ত

March 7, 2013 - 18:27

১০৪ তম আন্তর্জাতিক নারী দিবসের ঠিক আগের দিন কেরালার কোজিকোড়ে একটি ৩ বছরের শিশু শিকার হল গণধর্ষণের। রাস্তায় শিশুটিকে পিঁপড়ে মোড়া অচৈতন্য অবস্থায় উদ্ধার করল কিছু স্কুলপড়ুয়া। অন্যদিকে, গাজিয়াবাদের অদূরে এক ১৯ বছরের স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করল কিছু দুষ্কৃতী।

গত বছরের শেষে দিল্লির চলন্ত বাসে ঘটে যাওয়া গণধর্ষণকে কেন্দ্র করে প্রতিবাদে উত্তাল হয়েছিল সারা দেশ। যার রেশ এখনও হয়ত মিলিয়ে যায়নি। সরকার থেকে সাধারণ মানুষ, সবাই এই সামজিক ব্যাধির অবসানের দাবি জানিয়েছিল। দাবি উঠেছিল আইন পরিবর্তনের। তার জেরে গঠিত হয়েছে ভার্মা কমিশন। তৈরি হয়েছে নয়া অর্ডিন্যান্স। কিন্তু বাস্তব পরিস্থিতির বদল কি আদৌ হয়েছে? দিল্লির গণধর্ষণ নিয়ে দেশ যখন উত্তাল তার মধ্যেই দিল্লিতে স্কুল প্রিন্সিপালের লালসার শিকার হয় এক স্কুল ছাত্রী। বিহারে ট্রেন থেকে নামিয়ে গণধর্ষণের পর এক মহিলাকে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয় গাছে। ত্রিপুরায় জনসমক্ষে গণধর্ষণের শিকার হন এক গৃহবধূ। সরকারী স্কুলে ৭ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষিত হতে হয় শিক্ষকদের হাতে। মহারাষ্ট্রে তিন নাবালিকা বোনকে ধর্ষণের পর খুন করে ফেলে দেওয়া হয় কুয়োতে। কলকাতায় পরিতক্ত্য বাসে ধর্ষিত হন এক মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলা। এবং...এই তালিকা আসলে সীমাহীন। ঘটনাগুলির মাত্র কিছু শতাংশ সামাজিক সীমারেখা টপকে স্থান পায় সরকারি তালিকায়। তার মধ্যে গুটিকয়েক ঠাঁই পায় কাগজে। আজ নাকি নারী দিবস?

শুধুমাত্র ধর্ষণকেই যদি ধরা হয়, সেক্ষেত্রে পৃথিবীর বৃহত্তম গণতন্ত্রের সামাজিক পরিকাঠামোকে টপকে আইনের দোরগোড়ায় পৌঁছতে পারেন খুবই কম সংখ্যক মানুষ। এই সত্যিটাও সবারই জানা। কিন্তু এসব কিছু বাদ দিয়েও যাঁরা অভিযোগ নথিভুক্ত করতে পারেন তাঁদের মধ্যেও ক`জন সঠিক বিচার পান?

পরিসংখ্যানের দিকে নজর দিলে যে বাস্তবের মুখোমুখি হতে হয়, সেটা যথার্থই শিউরে ওঠার মত। আইনের প্রয়োগ যদি যথাযথ না হয় সেক্ষত্রে নতুন আইন প্রণয়ন করে কোন লাভ হবে কি না, নিম্নলিখিত পরিসংখ্যান কিন্তু তার দিকে বড়সড় প্রশ্নচিহ্ন ঝুলিয়ে দেয়।

কেন্দ্রীয় সরাষ্ট্রমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী ২০১১ সালে সারা দেশে মোট ১৫,৪২৩টি ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে।

কিন্তু তার মধ্যে মাত্র ৪,০৭২টি ক্ষেত্রে অপরাধীদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ, মাত্র শতকরা ২৬.৪% ক্ষেত্রে বিচার পাওয়া গিয়েছে। বাকি ১১,৩৫১টি ঘটনা এখনও লালফিতের ফাঁসে আটকে রয়েছে। কবে সেই সব ঘটনার মুক্তি ঘটবে, সে বিষয়ে সঠিক কোনও ইঙ্গিত এখনও পর্যন্ত পাওয়া

যায়নি। ফলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই প্রকৃত অপরাধীরা বহাল তবিয়তে এই সমাজের বুকেই ঘুরে বেড়াচ্ছে। সারা দেশের মধ্যে ২০১১ সালে সব থেকে বেশি ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে মধ্যপ্রদেশে। সরকারি মতে ওই বছর মোট ৩,৪০৬টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে এই রাজ্যে। যার মধ্যে মাত্র ২৩.৬% ক্ষেত্রে দণ্ডাজ্ঞা পাওয়া গেছে।

নারী সুরক্ষা নিয়ে রাজ্য সরকার যতই গর্ব করুক না কেন এ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছে পশ্চিমবঙ্গ। শুধু সরকারি তথ্য অনুযায়ীই ২০১১ সালে এ রাজ্যে ধর্ষিত হয়েছেন মোট ২,৩৬৩ জন। কিন্তু লজ্জাজনক ভাবে মাত্র ১১.৫% ক্ষেত্রে অপরাধীরা শাস্তি পেয়েছে। শুধু তাই নয় অপরাধীদের যথাযথ শাস্তি দানের শতকরা হিসেবে

পশ্চিমবঙ্গ দেশে একেবারে নিচের সারিতে। যদিও, এই রাজ্যগুলিতে মোট ধর্ষণের সংখ্যা পশ্চিমবঙ্গের থেকে অনেক কম।

আশ্চর্যজনকভাবে উত্তরপূর্বের ছোট্ট রাজ্য মণিপুরে ধর্ষণ কান্ডে অভিযুক্তদের ক্ষেত্রে ১০০% দণ্ডাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। ২০১১ সালে দেশের মধ্যে সবথেকে কম ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে সিকিমে। ১৬টি। তার মধ্যে ৫৫% ক্ষেত্রে শাস্তি পেয়েছে অপরাধীরা। উত্তরপূর্বের আরেক রাজ্য নাগাল্যান্ডেও ৮৪.২% ক্ষেত্রে অপরাধীদের শাস্তি দেওয়া

হয়েছে। পিছিয়ে নেই মিজোরামও। যদিও আসাম, ত্রিপুরাতে ধর্ষণের নথিভুক্ত ঘটনা আর শাস্তি প্রাপ্তির শতকরা হিসেবের মধ্যে বড়সড় দূরত্ব রয়েছে।

অন্যদিকে মহারাষ্ট্র, কেরল, অন্ধ্রপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, উত্তরপ্রদেশ এবং ওড়িশাতে ২০১১ সালে সরকারি তথ্য অনুযায়ী ধর্ষণের সংখ্যা ১০০০-এর বেশ কিছু বেশি। কিন্তু এদের মধ্যে একমাত্র উত্তরপ্রদেশে শতকরা ৫৪.৫ জন অপরাধী শাস্তি পেয়েছে। বাকি রাজ্য গুলিতে শাস্তি দানের শতকরা হার ৩০-এর কম।

যৌননির্যাতনের নিকৃষ্টতম অংশ সম্ভবত ইচ্ছার বিরুদ্ধে কাউকে যৌনসম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করা। যার পোশাকি নাম ধর্ষণ। যদিও তার মধ্যে থেকে এখনও আমাদের দেশের আইন বাদ দেয় বৈবাহিক ধর্ষণের ঘটনাকে। কিন্তু ধর্ষণ ছাড়াও আমাদের দেশে মেয়েদের উপর লাগাতার চলতে থাকা যৌননিগ্রহের ঘটনার সংখ্যাটা আসলে এতই বেশি তাকে বোধহয় আর তালিকাভুক্ত করাও সম্ভব না।

ভারতে প্রতিদিন গড়ে ৯৩ জন নারী ধর্ষণের শিকার হন: এনসিআরবি

বুধবার, 02 জুলাই 2014 00:08

২ জুলাই (রেডিও তেহরান): ভারতে প্রতিদিন গড়ে ৯৩ জন নারী ধর্ষণের শিকার হন বলে সরকারি সংস্থা ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর (এনসিআরবি) বার্ষিক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এনসিআরবি'র রেকর্ড অনুযায়ী, ২০১২ সালের তুলনায় গত বছর ধর্ষণের সংখ্যা বেড়েছে। ২০১২ সালে ২৪ হাজার ৯২৩ জন মহিলা ধর্ষিত হয়েছিলেন। ২০১৩ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৩৩ হাজার ৭০৭ জনে। ধর্ষণের পরিসংখ্যানে সবচেয়ে  এগিয়ে রয়েছে রাজধানী নয়াদিল্লি। মেডিকেল কলেজ ছাত্রী 'নির্ভয়া'র ঘটনার পরও নয়াদিল্লিতে ধর্ষণ কমেনি বলে এনসিআরবি দাবি করেছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১২ সালে দিল্লিতে ৫৮৫ জন মহিলা ধর্ষিত হলেও ২০১৩ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১,১৪১ জনে। দিল্লির পরেই রয়েছে মুম্বাই (৩৯১), জয়পুর (১৯২) ও পুণে শহর (১৭১)।

ধর্ষণের ক্ষেত্রে রাজ্যগুলোর মধ্যে এগিয়ে রয়েছে মধ্যপ্রদেশ। ২০১৩ সালের হিসাবে ওই রাজ্যে ৪,৩৩৫ জন মহিলাকে ধর্ষণ করা হয়। এ বছরের এপ্রিলে মধ্যপ্রদেশে চলন্ত একটি বাসের মধ্যে ১৪ বছরের এক দলিত বালিকাকে গণধর্ষণের অভিযোগ ওঠে পাঁচজনের বিরু‌দ্ধে। জমি বিতর্কের জেরে এ বছরের জুনে এক উপজাতি মহিলাকে গণধর্ষণ করে তার স্বামীসহ ১০ ব্যক্তি।

ধর্ষণের পরিসংখ্যানে মধ্যপ্রদেশের পরেই রয়েছে রাজস্থান (৩২৮৩), মহারাষ্ট্র (৩০৬৩, উত্তরপ্রদেশ (৩০৫০) ও তামিলনাড়ু (৯২৩)।  এনসিআরবি' র তথ্য অনুযায়ী, অধিকাংশ ধর্ষণে পরিবারের সদস্য, আত্মীয়স্বজন জড়িত।

গত ৩০ মে জার্মান রেডিও ডয়চে ভেলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ধর্ষণ বা যৌন নিগ্রহের তালিকায় ভারত বিশ্বের তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে। কার্যত প্রতি ২২ মিনিটে ভারতের কোথাও না কোথাও একজন সাবালিকা বা নাবালিকাকে যৌন নিগ্রহের শিকার হতে হচ্ছে। বলা বাহুল্য, এর দায় দেশের পুলিশ ও বিচারব্যবস্থার।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১২ সালে দিল্লির একটি বাসে বিবেক মথিত করা গণধর্ষণের ঘটনায় মেডিক্যাল ছাত্রীর মৃত্যুর ক্ষত শুকায়নি। অথচ একই রকমভাবে নিত্যদিন ঘটে চলেছে সাবালিকা বা নাবালিকার ওপর ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের ঘটনা, বারবার। বলতে গেলে প্রতি ২২ মিনিটে ভারতে যৌন নিগ্রহের ঘটনা ঘটছে আর রাজধানী দিল্লিতে ধর্ষণের হার গড়ে দৈনিক চার থেকে পাঁচটি করে।

২০১১ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রায় এক লাখ ধর্ষণ-সংক্রান্ত মামলা ঝুলে আছে দেশের বিভিন্ন আদালতে। তার মধ্যে মাত্র ২৬ শতাংশ দোষী সাব্যস্ত হয়েছে। এই দীর্ঘ বিচার প্রক্রিয়ার কারণে মহিলাদের বারবার আদালতে হাজিরা দিয়ে ধর্ষণের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিররণ দিতে হয় আসামিপক্ষের কৌঁসুলির জেরায়। তখন অনেক নারী ব্যথা, বেদনা আর হতাশায় আত্মহননকেই মনে করেন শ্রেয়।#



--
Pl see my blogs;


Feel free -- and I request you -- to forward this newsletter to your lists and friends!

No comments:

Post a Comment